মিষ্টি আলুর পুলি পিঠা

রাঙ্গা বা মিষ্টি আলুর পুলি পিঠা রেসিপি

এখন বাজারে সবসময় মিষ্টি আলু পাওয়া যায়। এই মিষ্টি আলু আমরা সিদ্ধ করে খেয়ে থাকি। কিন্তুু এই মিষ্টি আলু দিয়ে খুব মজাদার এবং মচমচে পুলি পিঠা তৈরি করা যায়। এইরাঙ্গা বা মিষ্টি আলুর পুলি পিঠা সকালের কিংবা বিকেলের নাস্তা হিসেবে খাওয়া যায়।

এটি একটি নতুন স্বাদের ভিন্ন নতুন এক পিঠা। এই নতুন পিঠাটা তৈরি করে প্রিয়জনদের চমকে দিতে পারেন। এই মিষ্টি আলুর পুলি পিঠা খাওয়ার পর দেখবেন আপনার প্রিয় মানুষগুলো খুব খুশি হয়েছে। তাহলে চলুন জেনে নেই কিভাবে রাঙ্গা বা মিষ্টি আলুর পুলি পিঠা তৈরি করা যায়।

মিষ্টি আলুর পুলি পিঠা তৈরী করতে  উপরের কভারের জন্য যা যা লাগবে:

মিষ্টি আলু :  ১/২ কেজি ( সিদ্ধ করে নিতে হবে), চালের গুড়া – ৩ টেবিল চামচ, ময়দা- ১ টেবিল চামচ, কনর্ফ্লাওয়ার -১ টেবিল চামচ, লবন – স্বাদমত, চিনি – ১ টেবিল চামচ (ইচ্ছে অনুযায়ী), তেল – ১/২ কেজি ( ভাজার জন্য)।

মিষ্টি আলুর পুলি পিঠা তৈরী করতে পুরের জন্য যা লাগবে:

নারকেল কুড়ানো – ১ কাপ, চিনি অথবা খেজুরের গুড় – ১/২ কাপ, এলাচ  ২-৩ টি।

মিষ্টি আলুর পুলি পিঠা তৈরী করবেন যেভাবে:

প্রথমে চুলায় একটি কড়াই বসিয়ে তার মধ্যে কুড়ানো নারকেল দিয়ে নাড়তে হবে। কিছুক্ষন নাড়ার পর কুড়ানো নারকেলের মধ্যে চিনি বা খেজুরের গুড় ও এলাচ দিয়ে অনবরত নাড়তে থাকতে হবে। না হয় নিচে লেগে যেতে পারে। নাড়তে নাড়তে যখন দেখা যাবে যে, চিনি বা গুড় গলে নারকেলের সাথে মিশি গেছে তখন চুলা বন্ধ করে নামিয়ে  ঠান্ডা করে নিতে  হবে।
উপরের কভারের জন্য : 
উপরের কভারের জন্য সিদ্ধ আলু একটি বাটিতে নিয়ে তার ভিতর একে একে সব উপকরণ ( চালের গুড়া, ময়দা, লবন, কনর্ফ্লাওয়ার, চিনি) মিশিয়ে নিতে হবে। মিশানো শেষ হয়ে গেলে এই ডোটাকে ছোট ছোট করে লেচি কেটে নিতে হবে। এই ডোটা দিয়ে ১০-১১ টি লেচি কাচা যাবে। এখন এই লেচি থেকে একটি লেচি নিয়ে প্রথমে গোল করে মাঝখানে একটু গর্ত করে এই গর্তের ভিতর নারকেলে পুর দিয়ে দিতে হবে। এখন সব পাশ থেকে ডো নিয়ে পুরটাকে ঢেকে দিতে হবে।
রাঙ্গা বা মিষ্টি আলুর পুলি পিঠা রেসিপি
ঢেকে দেওয়া হয়ে গেলে দুই পাশ থেকে ছোট ছোট করে কোণ এর মত করে দিতে হবে। তখন এটা দেখতে একটু পটলের মত লাগবে। এভাবে সবগুলো তৈরি করে নিতে হবে। এখন কড়াইতে তেল দিয়ে তেল গরম হয়ে আসলে বানিয়ে রাখা সবগুলো পিঠা দিয়ে দিতে হবে। যখন পিঠার একপাশ ভাজা  হয়ে আসবে তখন উল্টো পাশ ভাজতে হবে।
এভাবে করে যখন পিঠা বাদামি কালার হয়ে আসবে তখন একটি টিস্যু উপর পিঠা নামিয়ে নিতে হবে।  দেখলেন তো কত সহজে রাঙ্গা বা মিষ্টি আলুর পুলি পিঠা তৈরি হয়ে গেল।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

সংশ্লিষ্ট আরো পোস্ট