মোরগ পোলাউ রেসিপি

মজাদার মোরগ পোলাও রেসিপি

রমজানে ইফতারিতে ঝামেলা মুক্ত ভাবে তৈরী করে নিতে পারেন মোরগের পোলাও। এমনকি যে কোন ধরনের অনুষ্ঠান বা অতিথি আপ্যায়নে ও মোরগ পোলার কোন জুড়ি নেই। এটি বড় ছোট সকলের সকলের খুব পছন্দের একটি খাবার। খুব অল্প সময়ে রেস্টুরেন্টের স্বাদে এই খাবার তৈরী করা যায়। তাহলে চলুন জেনে নেই –

মোরগ পোলাও রেসিপি উপকরণ

মুরগির পিস – ১০ টি ( বড় সাইজের),  পোলাও চাল – ১ কেজি( ধুয়ে পানি জড়িয়ে নিতে হবে),   আদা বাটা – ১ টেবিল চামচ, রসুন বাটা – ১ টেবিল চামচ, এলাচ – ৬-৭ টি, দারুচিনি – ২ টি ( বড় সাইজের) , তেজপাতা – ৩ টি, জয়ফল ও জয়ত্রী বাটা – ১ চামচ, বাদাম বাটা – ২ টেবিল চামচ ( যে কোন বাদাম) , পেয়াজকুচি – ২ কাপ, কিচিমিচ – ১ টেবিল চামচ, আলু বোখরা – ১০-১২ টি, আলু – ১ কাপ ( বড় টুকরো করে কাটা) , ডিম – ৫ টি ( সিদ্ধ করে নিতে হবে) , লবন – স্বাদমত, মরিচের গুড়া – ১ টেবিল চামচ, কাঁচামরিচ বাটা – ১ টেবিল চামচ , ঘি – ৩ টেবিল চামচ, তেল – পরিমানমত, টকদই – ১ কাপ, পেয়াজ বেরেস্তা – ১ কাপ, গোলাপ জল – ১ চামচ, পানি – চালের ডাবল ( ফুটন্ত গরম) , দুধ – ১ কাপ, আস্ত কাঁচামরিচ – ৮-১০ টি।

মোরগ পোলাও রেসিপি

প্রথমে মুরগির পিস গুলোকে ভাল ভাবে ধুয়ে পরিস্কার করে নিতে হবে। এখন একটি ছড়ানো বাটিতে টকদই নিয়ে নিতে হবে। তারপর একটি চামচের সাহায্যে টকদইকে ভালো করে ফেটিয়ে নিতে হবে। ফেটানো হয়ে গেলে এর ভিতর স্বাদমত লবন ও মরিচের গুড়া দিয়ে দিতে হবে। তারপর ধুয়ে রাখা মুরগির পিস দিয়ে দিতে হবে। এখন ভালো করে টকদই এর সাথে মুরগির পিসগুলোকে মিশিয়ে নিতে হবে। এখন এই মিশ্রনটাকে ৩০ মিনিটের জন্য ঢেকে রেখে দিতে হবে।
৩০ মিনিট পর চুলার একটি কড়াইতে ২ টেবিল চামচ ঘি ও ২ টেবিল চামচ নরমাল তেল দিয়ে দিবো। যখন তেল গরম হয়ে আসবে তখন এর মধ্যে এলাচ, দারুচিনি, তেজপাতা দিয়ে দিতে হবে। এগুলো যখন হালকা গরম হয়ে আসবে তখন পেয়াজকুচি দিয়ে দিতে হবে। এখন অপেক্ষা করতে হবে পেয়াজকুচি ভাজা ভাজা হওয়া পর্যন্ত।
মোরগ পোলাও
যখন পেয়াজ ভাজা হবে তখন একে  একে আদা বাটা, রসুন বাটা, জয়ফল ও জয়ত্রী বাটা, কাঁচামরিচ বাটা, স্বাদমত লবন এবং দুধ দিয়ে দিতে হবে। যখন মসলা কষে আসবে তখন মেরিনেট করা মুরগির পিস দিয়ে দিতে হবে। এখন ঢাকনা দিয়ে ঢেকে মুরগি সিদ্ধ হওয়া পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হবে। তারপর মুরগি সিদ্ধ হয়ে আসলে বাদাম বাটা দিয়ে দিতে হবে। বাদাম বাটা দেওয়ার পর যখন মসলা মাখা মাখা হয়ে আসবে তখন সিদ্ধ করে রাখা ডিম দিয়ে হালকা একটু নেড়েচেড়ে তুলে নিতে হবে।
মোরগ পোলাউ রেসিপি
এখন একটি বড় পাত্রে ১ টেবিল চামচ ঘি ও হাফ কাপ পরিমান তেল দিয়ে দিতে হবে। তেল গরম হয়ে আসলে এলাচ, দারুচিনি  ও তেজপাতা দিয়ে দিতে হবে। এখন পোলার চাল দিয়ে দিতে হবে। যখন চাল ভাজা হবে তখন ফুটন্ত গরম পানি দিয়ে দিতে হবে। পানি দেওয়ার পর স্বাদমত লবন, আলু বোখরা এবং কিচমিচ দিয়ে হবে। তারপর ঢাকনা দিয়ে ঢেকে চাল সিদ্ধ হওয়া পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হবে। এখন অন্য চুলায় বড় করে টুকরা করা আলু লাল লাল করে ভেজে নিতে হবে। তারপর যখন চাল সিদ্ধ হয়ে আসবে তখন অর্ধেক পরিমান পোলাও  ওঠিয়ে রাখতে হবে। বাকি পোলার মধ্যে  মুরগির পিস ও মুরগির কষানোর যে জোল তা দিয়ে দিতে হবে।
তারপর আস্ত কাঁচামরিচ,  পেয়াজ বেরেস্তা ও ভেজে রাখা আলু  দিয়ে দিতে হবে। এখন তুলে রাখা পোলাও  দিয়ে হবে। পোলাও এমন ভাবে দিতে হবে যেন মুরগির পিস দেখা না যায়। এখন ওপরে আবার পেয়াজ বেরেস্তা, কিচমিচ ও গোলাপ জল দিয়ে ঢাকনা দিয়ে ঢেকে দমে রেখে দিতে হবে ১৫-২০ মিনিট। এই পাতিলের নিচে একটি তাওয়া দিতে হবে। আর তখন চুলার আচ একদম লোতে থাকবে। ২০ মিনিট পর ঢাকনা খুলে পরিবেশন করলে হয়ে যাবে রেস্টুরেন্ট স্বাদে মোরগ পোলাও।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

সংশ্লিষ্ট আরো পোস্ট