Jal Muri

ঝাল মুড়ি মসলা ও ঝাল মুড়ি তৈরী এবং সংরক্ষণ পদ্ধতি

ঝাল মুড়ির কথা মনে হলে, মনে পরে যায় স্কুল ও কলেজ জীবনের কথা। স্কুল ও কলেজ জীবনে রাস্তার পাশে দাড়িয়ে বন্ধু-বান্ধবীদের সাথে ঝালমুড়ি খাওয়ার মজাই আলাদা। রাস্তার পাশে মামাদের ঝাল মুড়ি তৈরী করা  ক্ষেত্রে যে মসলা তৈরী করা হয়, আজকের পর্বে আমি আপনাদের সেই ঝাল মুড়ি এবং মামাদের মতো ঝাল মুড়ি মসলা তৈরী করে দেখাবো। তাহলে দেখে নেওয়া যাক কীভাবে ঝাল মুড়ি মসলা ও ঝাল মুড়ি তৈরী এবং সংরক্ষণ পদ্ধতি –

ঝাল মুড়ি মসলা তৈরী করতে যে সকল উপকরণ লাগবে:

এলাচ-৫টি, দারুচিনি-১ টি(বড় টুকরা), মিষ্টিজিরা- ১ টেবিল চামচ, জিরা-১ টেবিল চামচ, লবঙ্গ- ৫-৬ টি, মেথি-১ চামচ, জয়ত্রী-২টুকরা, পেয়াজ বাটা-১/২ কাপ,  রসুন বাটা-১ টেবিল চামচ, আদা বাটা-১ টেবিল চামচ, সরিষা তেল-২ কাপ, সয়াবিন তেল-১ কাপ, মরিচের গুড়া-২ টেবিল চামচ, হলুদের গুড়া-১ টেবিল চামচ।

ঝালমুড়ি তৈরী করতে যে সকল উপকরণ লাগবে:

৩ জন পরিমান খাওয়া যায় এমন হিসাব:
ঝাল মুড়িমসলা-৩ টেবিল চামচ, চানাচুর-১/২ কাপ, ছোলাবুট-২ টেবিল চামচ(সিদ্ধ করা), কাচামরিচ-১ চামচ( স্বাদমতো) শসাকুচি-১ টেবিল চামচ, লেবুর রস-১ চামচ, মুড়ি -১ কাপ, টমেটো কুচি-২ টেবিল চামচ।

ঝাল মুড়ি মসলা তৈরী করবেন যেভাবে:

 প্রথমে এলাচ,দারুচিনি, লবঙ্গ, জয়ত্রী, মিষ্টিজিরা, জিরা, মেথি -হালকা একটু ভেজে গুড়া করে নিতে হবে। এখন একটি কড়াইতে সয়াবিন ও সরিষা তেল দিয়ে গরম হয়ে আসলে পেয়াজ বাটা, আদাবাটা, রসুন বাটা, মরিচের গুড়া, হলুদের গুড়া এবং প্রথমে যে গুড়া হয়েছে সবটুকু গুড়া দিয়ে হালকা আঁচে মসলা কষিয়ে নিতে হবে। যখন মসলা কষে আসবে তখন মসলার কাচা গন্ধ চলে যাবে। এরপর নামিয়ে ঠান্ডা করে নিতে হবে।

মুড়ি মসলা সংরক্ষণ :

এই মসলা একটি এয়ারট্রাইবক্সে নরমাল ফ্রিজে ১ সপ্তাহের মত ভালো থাকবে।

ঝাল মুড়ি তৈরী করবেন যেভাবে:

একটি বাটিতে অথবা বক্সে মুড়ি নিয়ে তারমধ্যে চানাচুর, সিদ্ধছোলাবুট, শসা, ঝালমুড়ির মসলা, কাঁচামরিচ, লেবুর রস, টমেটো কুচি একসাথে মিশিয়ে পরিবেশন করলে হয়ে যাবে ঝালমুড়ি মামাদের মতো ঝালমুড়ি।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

সংশ্লিষ্ট আরো পোস্ট